By | March 6, 2018

মার্কেট এ্যানালাইসিস কি?

বাজারের পরিস্থিতি সঠিকভাবে ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ করে বাজার কোন দিকে যাবে তার নির্দেশনা প্রদান করায় হচ্ছে মার্কেট এ্যানালাইসিস। এজন্য আপনাকে বাজারের বিভিন্ন ধরনের তথ্য, যেমন অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, বিভিন্ন ধরনের নিউজ। এমনকি বিভিন্ন বইপত্র পড়ে শিখতে হবে মার্কেটের এ্যানালাইসিস। ভবিষ্যত মার্কেটের মুদ্রার উর্ধ্বগতি/নিম্নগতি ভবিষ্যবানী করার জন্য আপনাকে দুটি ধরনের বিশ্লেষণ শিখতে হবে:

⇒ ফরেক্স টেকনিক্যাল বিশ্লেষণ এবং

⇒  ফরেক্স ফান্ডামেন্টাল বিশ্লেষণ।

ফরেক্স টেকনিক্যাল বিশ্লেষন ও ফান্ডামেন্টল বিশ্লেষণ গুলোর বৈশিষ্ট্যগুলি কি কি?

⇒ ফরেক্স বেসিক বিশ্লেষণ

বৈদেশিক মুদ্রার মৌলিক বিশ্লেষণে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক খবর বিশ্লেষণ, মুদ্রার হার এর উপর প্রভাব বিস্তার করে। এটি মুদ্রার বাজারের মূল্যের আচরণের পূর্বাভাসের লক্ষ্যমাত্রা অন্তর্ভুক্ত করে থাকে। এই কাজের ভিত্তিতে দেশের মৌলিক তথ্য বিবেচনা করা হয়। ফরেক্সে মৌলিক বিশ্লেষণ করা খুবই কঠিন কাজ, কারন একই বিষয়গুলির পরিস্থিতির উপর বিভিন্ন প্রভাব  হতে পারে। মৌলিক বিশ্লেষণের উপর ভিত্তি করে মুদ্রা বাজারে নির্ভর করে প্রধান উপাদানগুলোর প্রভাব সম্পর্কে স্পষ্ট বোঝার।
মৌলিক বিশ্লেষণ নিম্নলিখিত সূচক বিবেচনা করে:

⇒ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুদের হার;

⇒ রাষ্ট্রীয় অর্থনৈতিক নীতি;
⇒ রাজনৈতিক পরিস্থিতি;
⇒ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির বৈশিষ্ট্য;
⇒ বাণিজ্য ভারসাম্য সূচক;
⇒ মুদ্রাস্ফীতির হার;
⇒ রাষ্ট্র সচ্ছলতা;
⇒ বিনিয়োগকারীদের সেন্টিমেন্টার;
⇒ পণ্য প্রতিযোগিতা;
⇒ ভোক্তা অনুভূতি;
⇒ রিয়েল এস্টেট বাজারের অবস্থা;
⇒ শ্রম বাজারের অবস্থা;
⇒ অন্যান্য সূচক,

মৌলিক তথ্য গুলো সূচী আকারে প্রকাশিত হয় যা নিয়মিত পর্যালোচনা করা হয়। তথ্য অনুমান করার সময়, পূর্ববর্তী এবং বর্তমান সূচকের তুলনা ঘটে এবং বহু বছর ধরে গতিশীল ও অর্থনৈতিক প্রক্রিয়াগুলির বিশ্লেষণ করা হয়। তথ্য এবং সম্ভাব্য পরিণামগুলির সাথে সংযুক্ত করার জন্য বিশ্লেষণাত্মক দক্ষতা থাকা অতীব গুরুত্বপূর্ণ। অবিচ্ছিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্লেষণাত্মক দক্ষতা তৈরি করা যেতে পারে।

ফরেক্স মার্কেটের বিশদ বিশ্লেষণের বৈশিষ্ট্যটি দীর্ঘমেয়াদী লেনদেনের উপর ভিত্তি করে (কোয়াটার, অর্ধ বছর, চতুর্থাংশ)। অনেকেই এই বিশ্লেষণ পরিচালনা করার প্রয়োজন মনে করে না। যদিও এটি ভবিষ্যতের পরিস্থিতির পূর্বাভাসের জন্য একটি শক্তিশালী হাতিয়ার যা উপেক্ষা করা উচিত নয়।

ফান্ডামেন্টাল এবং টেকনিক্যাল বিশ্লেষণ পরিচালনা প্রতিটি ট্রেডারদের/ব্যবসায়ীদের কাজ বাধ্যতামূলক হতে হবে।

বৈদেশিক মুদ্রার টেকনিক্যাল বিশ্লেষণ
বৈদেশিক মুদ্রার প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ কারিগরি সূচক ব্যবহার করে চার্টের বিশ্লেষণের উপর ভিত্তি করে মুদ্রা হার পূর্বাভাসের পদ্ধতি। এটা ঐতিহাসিক তথ্য উপর ভিত্তি করে মূল্যের ভবিষ্যতে দিক নির্ধারণ করতে সাহায্য করে। এই বিশ্লেষণের সুবিধাটি একদিনের মধ্যে লেনদেনের মধ্যে পরিচালিত অপারেশন থেকে কয়েক সপ্তাহের, স্বল্পমেয়াদী এবং মধ্যমেয়াদি পূর্বাভাসে এটি ব্যবহার করার সুযোগ রয়েছে।

কারিগরী বিশ্লেষণটি তিনটি সূত্রের উপর ভিত্তিক করে গঠিত হয়।
১. বাজার সবকিছু বিবেচনা করে।

২. বাজারে প্রভাব ফেলছে এমন ফ্যাক্টর ইতিমধ্যে মূল্যের মধ্যে প্রতিফলিত হয়েছে

৩. বাজারে অংশগ্রহণকারীদের আচরনের উপর নির্ভর করে।

মুদ্রার মূল্য একটি নির্দিষ্ট দিক মধ্যে সরানো বা কোন মূল্য পরিবর্তন তিনটি দিকনির্দেশের মধ্যে একটি।

প্রবণতা বেড়ে যেতে পারে (ক্রমবর্ধমান বা “বুলিশ”), ডাউন (বা “বিয়ারিশ”) বা “ফ্ল্যাট” হতে পারে। ট্রেডারের কাজটি হচ্ছে শুরুতেই এ প্রবণতাটি সনাক্ত করা এবং ট্রেড করার সময় এটি অনুসরণ করে যতক্ষণ না এটি পরিবর্তন হয় সেই দিকে লক্ষ্য রাখা।
বাজার একটি ভাল মেমরি আছে (ইতিহাস পুনরাবৃত্তি)। আগের অবস্থার প্যাটার্ন বর্তমান মধ্যে প্রতিফলিত হয়। যে নীতি অনুসারণ করে বাজারে প্রভাবে প্রভাবিত অপরিবর্তিত হয়।

চার্লস ডো (1851-190২ )কে প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণের “পিতা” বলা হয়। ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে তিনি একটি ধারাবাহিক নিবন্ধ প্রকাশ করেন যার মধ্যে তিনি স্টক মার্কেটের তার পর্যবেক্ষণগুলো তুলে ধরেছেন। তার পর্যবেক্ষণ প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণের ভিত্তি গঠিত হয়।

কারিগরি বিশ্লেষণে এমন পদ্ধতি রয়েছে যা বাজারে প্রবেশের সবচেয়ে সুবিধাজনক মুহূর্তটি খুঁজে বের করে দেয়। সমস্ত পদ্ধতি বাণিজ্য ভলিউম এবং মূল্য নিদর্শন মূল্যায়ন উপর ভিত্তি করে। ঐতিহাসিক মূল্য তথ্য উপর ভিত্তি করে যা তথ্য, সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে যা টুলস, (candlesticks, বার চার্ট, লাইন চার্ট এবং অন্যান্য কম বেশী জনপ্রিয়) এবং অন্যান্য প্রযুক্তিগত সূচক প্রদর্শন গ্রাফিকাল উপায়।

সূচক দ্বারা প্রদত্ত সমস্ত সংকেত গুলো ও সূচকগুলো ব্যবহার করে, অন্য টুলস গুলোর সাথে, যা বাজার বিশ্লেষণে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে।

মৌলিক এবং প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ একত্রিত হয়ে সবচেয়ে কার্যকর হয়। এটি বেশ কঠিন, তবে এটি আপনাকে মুদ্রা বাজারে ট্রেডিং থেকে স্থিতিশীল আয় পেতে সহায়তা করে। মৌলিক বিশ্লেষণ টেকনিক্যাল বিশ্লেষণের বিপরীত কারণ অনুসন্ধানের উপর ভিত্তি করে মুদ্রা হারের সাথে কি ঘটছে তা দেখায়। উভয় বিশ্লেষণই একে অপরের পরিপূরক।

মৌলিক এবং প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ পরিচালনা প্রতিটি বিষয় ব্যবসায়ীদের কাজে বাধ্যতামূলক জানতে হবে। একমাত্র উপায় একটি ব্যবসায়ী কর্মের ক্রম সনাক্ত এবং সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হবে।

বৈদেশিক মুদ্রা বাজারে পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করা খুবই কঠিন। একটি ট্রেডারের ট্রেড করার জন্য, আমরা যেমন আর্থিক ক্যালেন্ডার এবং সুদের হারের মত মৌলিক বিশ্লেষণ পরিচালনা করার মত তথ্য দিখে থাকি।

ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম মেটাট্রেডার 4 এর প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ পরিচালনার জন্য একটি ব্যাপক বিকল্প পদ্ধতি রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *